যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় দুই বছরের ছেলের গুলিতে প্রাণ গেল এক ব্যক্তির। জানা গেছে, ওই ব্যক্তির বাড়িতে গুলিভর্তি একটি বন্দুক ছিল। বন্দুকটি অরক্ষিত অবস্থায় ছিল। তার দু’বছর বয়সী ছেলে সেই বন্দুকটি হাতে নিয়ে দেখতে-দেখতে বা খেলতে-খেলতে ভুলবশত সেটি থেকে গুলি ছুড়ে ফেলে। আর সেই গুলি গিয়ে লাগে বাবার শরীরে। মারাও যান বাবা।

ফ্লোরিডার অরল্যান্ডো শহরের কাছে বাড়ি রেগি মাবরি নামের ওই ব্যক্তির। ঘটনার পরে জরুরি সাহায্য চেয়ে বাড়িটি থেকে পুলিশকে ফোন করা হয়। পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখেন, মেঝেতে পড়ে আছেন গুলিবিদ্ধ রেগি। আর তার বুক চেপে ধরে তাকে বাঁচানোর চেষ্টার করছেন স্ত্রী ম্যারি রোজ আয়ালা।

অরেঞ্জ কাউন্টির শেরিফ জন মিনা বলেছেন, পুলিশ কর্মকর্তারা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরই রেগি মাবরি মারা যান। পুলিশের প্রাথমিক ধারণা অবশ্য ছিল রেগি (২৬) আত্মহত্যা করেছেন। পরে ওই দম্পতির তিন সন্তানের মধ্যে বড় জন পুলিশকে বলে, তার দু’বছরের ছোট ভাই বাবাকে গুলি করেছিল।

আদালতে দাখিল হওয়া নথি থেকে জানা যায়, একটি ব্যাগে ওই বন্দুকটি ছিল। ব্যাগটি মেঝেতে ফেলে রেখেছিলেন রেগি। তার দু’বছরের ছেলে ব্যাগের কাছে এসে বন্দুক হাতে তুলে নেয়। এরপর পেছন থেকে বাবার পিঠে গুলি করে। রেগি তখন কম্পিউটারে ভিডিও গেম খেলছিলেন।

এদিকে, ওই ঘটনায় রেগির স্ত্রী ম্যারি আয়ালাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অবহেলায় হত্যা সংঘটিত হওয়া, একজন দোষী সাব্যস্ত অপরাধীর কাছে আগ্নেয়াস্ত্র রাখা, দোষী অপরাধীর কাছে গোলাবারুদ সংরক্ষণ এবং প্রবেশন লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here